মির্জাগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষের জন্য ৩৭৬টি কম্বল বরাদ্ধ

পটুয়াখালী ওয়েব রিপোর্ট॥
মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী)সংবাদদাতা॥
কয়েকদিন ধরে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ ও ঘন কুয়াশায় মির্জাগঞ্জের জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। মির্জাগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। কিন্তু কম্বল বরাদ্ধ হয়েছে মাত্র ৩৭৬টি। যা জনসংখ্যার তুলানায় অনেক কম। ঘন কুয়াশার চাদর ভেদ করে উঁকি দিতে পারছেনা সূর্য। অনেক সময় দশটার পরে সূর্য দেখা গেলেও কুয়াশা যেন কাটছেনা। হাড় কাপানো শীতের দাপটে কাহিল হয়ে পড়ছে বৃদ্ধ,নর-নারী ও শিশু-কিশোরা। সাধারন খেটে খাওয়া মানুষ জড়োসড় হয়ে পড়ছে। শীতের তীব্রতার সঙ্গে চারিদিকে শীতজনিত রোগ নিউমোনিয়া,সার্দি,কাশি,জ্বর,আমাশায়সহ নানা জটিল রোগ দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে। উপজেলার সুবিদখালী বাজারসহ বিভিন্ন হাট বাজারে শীত কাপড়ের চাহিদা বেড়ে গেছে। এ পযর্ন্ত বেসরকারি ভাবে কোন শীতবস্ত্রের বিতরনের ব্যবস্থা করা হয়নি। বেশির ভাগ ভোগান্তিতে পড়েছে সিড়র ও আইলা বিধ্বস্ত পায়রা পারের মেন্দিয়াবাদ গ্রামের মানুষ। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তৌফিকুল ইসলাম বলেন, সরকারি ভাবে ৩৭৬টি কম্বল পাওয়া গেছে। বরাদ্ধকৃত কম্বলগুলো বিতরন করা হয়েছে।

পটুয়াখালী ওয়েব/২০১৫/অপ

তারিখ : ২০১৫-০১-২৪ সময় : ০৩:২০:৫৯ বিভাগ: মির্জাগঞ্জ