রাঙ্গাবালীতে জমি নিয়ে বিরোধঃ বাড়িতে আগুন

মুহূর্তের খবর রিপোর্ট॥


জমাজমি বিরোধকে কেন্দ্র করে চারিদেকে কেরোসিন দিয়ে আগুন লাগিয়ে পাকেরঘর সহ বসতঘর পুরিয়ে আঙ্গার করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এতেও ক্ষান্ত হয়নি দস্যুতা। এখন দেশ ছাড়ার হুমকি বাদী পরিবারকে। এ জঘন্য ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার ছোট বাইশদিয়া ইউনিয়নের চরইমারমস গ্রামে। পাকেরঘর সহ বসতঘর ভস্মিভূত করার ঘটনার নায়ক একই গ্রামের নজরুল প্যাদা ও নান্নু প্যাদাকে সহ ১২জনকে চিহ্নিত করে রঙ্গাবালী থানায় মামলা করেন ক্ষতিগ্রস্থ মোসা. চাম্পা বেগম। এ মামলার অন্য আসামী হচ্ছে, রফিক প্যাদা(৪৭), নাসির সিকদার(৩০), আলামিন(২৩), রাসেল (১৮), মিলন(২৪), ফাতেমা বেগম(৪২), ময়না বেগম(৪২), মাহমুদা বেগম(২৮), হাসি বেগম(৪৮) ও লায়লা বেগম(২০)।
মামলার বিবরন ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, বাদী চাম্পা বেগমের পিতা মন্নান কাজীর সাথে উক্ত আসামী নজরুল প্যাদা ও নান্নু প্যাদা গংদের সাথে জমাজমি নিয়ে বিরোধসহ মামলা মোকদ্দমা চলে আসছে। পিতা মন্নান কাজীর পক্ষে চাম্পা বেগম ও পারভীন বেগম (দুই বোন) মামলা পরিচালনা করে আসছিল। মামলা চলমান আছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নজরুল প্যাদা ও নান্নু প্যাদা গং ০২.০৯.২০১৪ইং তারিখ চাম্পা ও পারভীন বেগমকে খুন জখম ও বাড়িঘর আগুনদিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এ হুমকি ঘটনায় চাম্পা বেগম বাদী হয়ে গলাচিপা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফৌ: কা: বি: ১০৭,১১৪,১১৭(গ) ধারায় মামলা দায়ের করে। মামলা নং-এমপি-৫৬৩/১৪। এ মামলা করায় আসামী নজরুল প্যাদা, নান্নু প্যাদা ও রফিক প্যাদা অন্যান্য আসামীদের সহায়তায় গতবছরের ৩ডিসেম্বর বুধবার রাতে পাকের ঘর ও বসত ঘরের চারিদিকে কেরোসিন তেল ছিটিয়ে ছড়িয়ে আগুন লাগিয়ে ঘর দুটি সহ ঘরের সকল মালামাল সম্পূর্ণভাবে ভস্মিভূত করে দেয়। এ আগুনের লেলিহান দেখে চাম্পা বেগম তার বোন পারভীন বেগমের বাড়ি থেকে দৌড়ে বাড়িতে আসে। এ সময় কেরোসিনের পট হাতে নজরুল প্যাদাকে সহ অন্যান্য আসামীদের দৌড়ে যেতে দেখে চাম্পা বেগমসহ তার সাথে থাকা তোফায়েল কাজী, জাহাঙ্গীর কাজী, মাহিনুর, পারভীন, বেল্লাল কাজীসহ অন্যরা। এ ঘটনায় মামলা করায় উক্ত নজরুল প্যাদা, নান্নু প্যাদা ও রফিক প্যাদাসহ অন্যান্য আসামীরা চাম্পা বেগম ও পারভীন বেগমকে মামলা তুলে না নিলে দেশ ছাড়তে বলে, দেশ না ছাড়লে খুন জখম করার হুমকি দিচ্ছে বলে বাদী অভিযোগ করেন।
আসামীরা আদালতে হাজির হলে নজরুল ও নান্নু প্যাদাকে জেল হাজতে প্রেরন করেন বিজ্ঞ বিচারক। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আসামী রফিক প্যাদা গং বাদীর ভাই বেল্লাল কাজী ও জাফর কাজীর ছোটবাইশদিয়া বাজারে দুটি দোকানে হামলা চালিয়ে বেল্লাল কাজীর ছেলে ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র রাসেল কাজীকে মারধর করে দোকান বন্ধ করে ত্রাসের সৃষ্টি করে। এ খবরে রাঙ্গাবালী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সন্ত্রাসীদের ধাওয়াকরে তাড়িয়ে দিয়ে দোকান খুলে দেয়ার ব্যবস্থা করে। এসব সন্ত্রাসীহামলায় ও খুন জখম করার হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে বাদী চাম্পা বেগমসহ তার স্বজনরা।

মুহূর্তের খবর/২০১৪/অপ

তারিখ : ২০১৫-০১-১৬ সময় : ১১:০৫:৩৭ বিভাগ: গলাচিপা