বাউফলে বিধবার নির্মাণাধীন বসতঘর গুঁরিয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষ

পটুয়াখালী ওয়েব রিপোর্ট॥

 উত্তম কুমার: বাউফলের কনকদিয়া ইউনিয়নের আমিরাবাদ গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে এক বিধবার নির্মাণাধীন বসতঘর ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। গতকাল শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
স্থানীয় সূত্র জানায়, কনকদিয়া ইউপির আমিরাবাদ গ্রামের জয়নাল আবেদীন মৃত্যুর সময় তার তিন ছেলের মধ্যে ছোট ছেলে মোতালেব (৪০) কে নিজের বসতভিটা অছিলত করে দিয়ে যান। পিতার মৃত্যুর পর এনিয়ে অন্য দুই ভাই নূর ইসলাম (৫৫) ও মজিবর (৫০) এর সাথে মোতালেবের বিরোধ সৃষ্টি হয়। এনিয়ে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার সালিশ-বৈঠক করেও কোন সূরাহা হয়নি। তিন ভাইয়ের মধ্যে মজিবর মারা গেলে তার বিধবা স্ত্রী সালমা বেগম (৪০) বসবাস করার জন্য পিতার ভিটায় টিনসেট বিল্ডিং করতে ছিল।

এনিয়ে বড় ভাই নূর ইসলামের ছেলে বাবুল খানের (৩০) সাথে এক সপ্তাহ আগে সালমা বেগমের ঝগড়া হয়। ঝগড়ার পর সালমা বেগম তার নির্মাণাধীন ঘর ভেঙ্গে ফেলতে পারে মর্মে বাউফল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। গতকাল শনিবার সকাল সারে সাতটার দিকে ওই ঝগড়ার জের ধরে বাবুল খানের নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল সাবল, কুঠার ও হাঁতুরি দিয়ে সালামা বেগমের নির্মাণাধীন টিনসেট বিল্ডিং গুঁরিয়ে দেয়। ঘর ভাঙ্গার খবর পেয়ে বাউফল থানার এসআই টিপুর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শান্তি শংৃখলা রক্ষার স্বার্থে উভয় পক্ষকে নিবৃত্ত করে ঘরের নির্মাণ কাজ আপাতত:বন্ধ রাখতে বলেন। বাউফল থানার ওসি নরেশ কর্মকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওই বসত ভিটা নিয়ে তিন ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। শান্তি-শৃংখলা রক্ষার স্বার্থেই নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। তবে সালমা বেগম জানান, বাড়ির মুরুব্বীদের সিদ্ধান্ত মোতাবেকই তিনি ঘর নির্মাণ করতে ছিলেন। পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে তার ঘরের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।

পটুয়াখালী ওয়েব/২০১৫/অপ

তারিখ : ২০১৫-০১-২০ সময় : ১৭:২১:৪১ বিভাগ: বাউফল