কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মরা জেলি ফিস

মুহূর্তের খবর রিপোর্ট॥

কুয়াকাটা প্রতিনিধি: জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সমস্যায় সমুদ্রের পানিতে লবনাক্ততা বৃদ্ধি পাওয়ায় জোয়ারের সাথে ভেসে আসছে মরা জেলি ফিস। কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের একাধিক পয়েন্টে আটকে পড়ে আছে এ মাছ। গত শুক্রবার থেকে শনিবার শেষ বিকেল পর্যন্ত জোয়ারের তোড়ে তীরের দিকেও অসংখ্য এসব মাছ ধেয়ে আসছে বলে একাধিক জেলেরা জানিয়েছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, কুয়াকাটা সৈকতের দীর্ঘ ১৮ কিলোমিটারের একাধিক পয়েন্টে জোয়ারের পানির সাথে মরা জেলি ফিস ভেসে এসে আটকা পড়েছে। মরা এ জেলি ফিসগুলো উৎসুক পর্যটকরা দেখতে ভীড় করলেও আগামী ২-১ এ রকম থাকলে র্দূগন্ধ ছড়াবে বলে পর্যটকরা দাবী করেছে। এদিকে ফিশারিজ বিভাগের গভেষকদের মতে, জেলি ফিস গভীর সমুদ্রে মাছ। সমুদ্রের পানিতে  কোন বিপর্যয় বা পরিবর্তের প্রভাবে উপকূলের কাছাকাছি চলে আসাটাই শংকা বা শংকিত হবার কথা রয়েছে।  জেলি ফিস বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী। একটি প্রজাতি মিঠা পানিতে পাওয়া যায়। এরা সাধারনত পানির উপর ভাগে থাকে। গভীর সমুদ্রে  জেলি ফিসের হরেক রকম জাত রয়েছে।এদের বিশেষ ধরনের দংশণ কোষ আছে। যাকে ইরেজীতে ঔবষষু ঋরংয বলে। বহির বিশ্বে এটার মার্কেট মূল্য অনেক বেশী। উন্নতমানের হোটেলে  উৎকৃষ্টমানের খাবার হিসেবে বিক্রি হয়। এগুলো স্পর্শ করলে শরীর চুলকায়, ঘা হয়ে যেতে পারে। এমন কি বিশেষ কোষের কামড়ে মানুষ মারাও যেতে পারে। কুয়াকাটা সৈকতে আটকে মরে যাওয়া জেলি ফিস গুলো পঁচে গন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ দূষিত হতে পারে। তাই কাঠ বা লোহা দিয়ে তুলে এ মাছগুলো বালুতে পুতে ফেলা উচিত বলে অভিজ্ঞমহলের দাবী। এমনকি মৃত্যু অবস্থাও এদের কোষ গুলো সক্রিয় থাকে।
লেম্বুর চরের খুটা জালের জেলে ছালাম জানান, গত শুক্রবার থেকে তাদের জালে প্রচুর পরিমানে বিরল প্রজাতির ওইসব মাছ ধরা পড়েছে। বর্তমানে অনেক জেলেই এসব মাছের কারনে বিরক্ত হয়ে সমুদ্রে মাছ শিকারে যাচ্ছেনা।
কুয়াকাটা নৌ -পুলিশ ফাড়ি ইনচার্জ এসআই সঞ্জয় মন্ডল  সত্যতা স্বীকার করে জানান, শুক্রবার ও শনিবার সৈকতের একাধিক পয়েন্টে গিয়ে তিনি জেলি ফিস দেখেছেন। পর্যটকসহ স্থানীয়রা যাতে এসব মাছগুলো না ধরে সেসব বিষয় শনিবার থেকে মাইকিং করে দেয়া হবে।
কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা জেলেদের বরাদ দিয়ে বলেন, গত২-৩ দিন থেকে এসব জেলি ফিসগুলো উপকূলের কাছাকাছি এসে জেলেদের জালে আটকা পড়েছে। পরবর্তীতে জাল থেকে জেলেরা ফেলে দেওয়ায় মরা মাছ কুয়াকাটা সৈকতের বেলাভূমিতে আসতে শুরু করেছে।    
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বিভাগের ডীন ড. মো. লোকমান আলী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন জনিত সমস্যায় সমুদ্রে মাছ উপকূলে এসে মরে যেতে পারে।
কুয়াকাটা সী-বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি ও পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক অমিতাভ সরকার বলেন, কুয়াকাটা সমুদ্রে ভেসে আসা জেলি ফিসগুলো যাতে র্দূগন্ধ না ছড়ায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, ২০১০ সালের জানুয়ারি মাসে এ রকমের অসংখ্য জেলি ফিস কুয়াকাটা সৈকতের দিকে ধেয়ে এসেছিলো । তখন স্থানীয় প্রশাসন ও জেলেরা তাদের উদ্যোগে বালুতে পুতে রেখেছিল।  ###

মুহূর্তের খবর/২০১৪/অপ

তারিখ : ২০১৫-০১-১৬ সময় : ১২:৩৪:৫৯ বিভাগ: কলাপাড়া